“তেরে লিয়ে, হাম হে জিয়ে..” শিবানী দেবীর জীবন, হার মানালো পর্দার আর্তিকে

প্রায় এক যুগেরও বেশ কয়েক বছর আগে মুক্তি পেয়েছিল “ভীর-জারা”। ভীর এবং জারা নামের দুই যুবক যুবতীর, এক মন কেমনের গল্পের সাক্ষী হয়েছিলেন আপামর দর্শক। নামভূমিকায় অভিনয় করেন বলিউড বাদশা শাহরুখ খান এবং প্রীতি জিন্টা। সেই ছবিরই গান ছিল “তেরে লিয়ে, হাম হে জিয়ে..”। গানটির বাস্তবায়ন ঘটল যেন সম্প্রতি! তাও খোদ বাংলার বুকে। তবে ছবির সঙ্গে মিল নেই বাস্তবের। আসলে ঘটনাটি আবর্তিত হয়েছে স্বয়ং কিং খানকে কেন্দ্র করে।

খরদাহের এক প্রৌঢ়া শিবানী দেবী দুরারোগ্য ব্যাধি, ক্যান্সারে আক্রান্ত। তিনি শাহরুখ ভক্ত। কর্কট রোগ তাঁর সময় সীমিত করে তুলেছে। শেষ পর্যায়ে দাঁড়িয়ে তাঁর একমাত্র ইচ্ছে, স্বপ্নের নায়ককে একটিবার চাক্ষুষ করা। তাঁর এই ইচ্ছে বেশ কিছুদিন যাবত আলোড়ন ফেলে দেয় সামাজিক মাধ্যমে। বলা বাহুল্য, শিবানী দেবীর মনের এই “মন্নত” পূরণ করলেন বলিউডের “দিলওয়ালে” খান।

শিবানী দেবীকে ভিডিও কল করেন শাহরুখ। পাঁচ দশ মিনিট নয়, তিরিশ মিনিট মত একে অপরের সঙ্গে আলাপচারিতায় মত্ত থাকেন তাঁরা। শাহরুখ বারবার ফোন রাখার কথা বললেও, অসহায় শিবানী দেবীর থেকে সহজে বিচ্ছিন্ন হতে পারছিলেন না। শুধু ফোনে কথা বলাই নয়, তিনি জানিয়েছেন শিবানী দেবীর চিকিৎসার যাবতীয় খরচ বহন করতেও তিনি রাজি। অভিনেতা শিবানী দেবীকে বলেন, কলকাতায় এলে তাঁর হাতের তৈরি মাছ তিনি অবশ্যই খাবেন এবং তাঁর মেয়ে প্রিয়ার বিয়েতেও উপস্থিত থাকবেন। শাহরুখ দেবতুল্য, শিবানী দেবী জানতেন। কিন্তু তাঁর জীবনেই যখন শাহরুখ জিওন কাঠি হয়ে উঠলেন, তখন আবেগে ভাসলেন শিবানী দেবী।

শাহরুখের এই হেন ব্যবহারে, মুগ্ধ নেট দুনিয়া। সকলেই এই ঘটনার কথা নিজেদের টাইমলাইনে শেয়ার করে, কুর্নিশ জানাচ্ছেন অভিনেতাকে। সত্যিই, শাহরুখের ছবির গানই শিবানী দেবীর ক্ষেত্রে যেন জীবন্ত হয়ে মনে করিয়ে দেয়, “তেরে লিয়ে, হাম হে জিয়ে..”। এভাবেই পর্দার রূপকথা, বাস্তবের বুকে স্বপ্রতিভ হয়ে উঠতে পারে!

Scroll to Top